সদর প্রতিবেদক: ফেনীর কালিদাস পাহালিয়া নদীতে ফিক্সড নেট বসিয়ে মাছের অবাধ বিচরণ বাধা সৃষ্টি করায় ২৪ এপ্রিল সকাল ৮টার সময় সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নুরুজ্জামান চৌধুরীর নেতৃত্বে অভিযান ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। এসময়  ফেনী সদর উপজেলাধীন কালিদহ ইউনিয়নের জামেয়া রশিদীয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন কালিদাস পাহালিয়া নদীতে অবৈধভাবে ফিক্সড নেট বসিয়ে মাছের স্বাভাবিক বিচরণক্ষেত্র বাধাগ্রস্ত করার খবর পেয়ে মৎস্য বিভাগকে অবগত করা হয়। এর প্রেক্ষিতে ফেনী সদর উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোস্তফা জামানের উপস্থিতিতে মৎস্য রক্ষা আইন, ১৯৫০ অনুযায়ী অভিযান পরিচালনা করা হয়।অভিযানের খবর শুনেই দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়।এসময় আনুমানিক দেড় হাজার মিটার অবৈধ ফিক্সড নেট আটক করে পুড়িয়ে দেয়া হয়।অভিযানে ব্যাটেলিয়ন আনসার সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উপস্থিত জনগণকে এ বিষয়ে সচেতন করা হয় এবং এ ধরনের দুষ্কর্ম থেকে বিরত থাকতে সাবধান করা হয়। প্রয়োজনে দুষ্কৃতিকারীদের ধরিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়।অভিযানের শেষ পর্যায়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা মৎস্য কর্মকর্তা উপস্থিত হয়ে জনগণকে মৎস্য রক্ষা বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করেন বলেন, দেশীয় মাছের প্রধান উৎপাদনস্থল হল নদী-নালা, খাল বিল।প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগ মাছের প্রাকৃতিক বিচরণক্ষেত্র রক্ষার্থে বদ্ধপরিকর। এ ধরনের অভিযান চালিয়ে যেতে হবে বলেও তারা জানান।

Share Button