নিজস্ব প্রতিবেদক: নভেল করোনা (কেভিট-১৯) ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে গত ২৪ ঘন্টায় ফেনীতে হোম কোয়রেন্টিনে গিয়েছে ৪০ জন বিদেশ ফেরত । জেলায় মোট ৯২৭ বিদেশ ফেরত হোম কেয়ারেন্টিনে রয়েছে, তাদের সাথে হোম কেয়ারেন্টিনে রয়েছে তাদের পরিবারের সদস্যরাও। অপরদিকে গত ২৪ ঘন্টায় ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে ৪২ জনের। এ পর্যন্ত মোট হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে ২৭৭ জনের । যেসব বিদেশ ফেরতদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন শেষ হয়েছে তাদেরকে মৌখিক ছাড়পত্র দিয়ে পর্যবেক্ষনে রেখেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

ফেনী জেলা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার তাহসিন নুর অমি শুক্রবার (২৭ মার্চ)এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সিভিল সার্জন ডাঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিমান বন্দরের তথ্যানুযায়ী জেলায় এ র্পযন্ত ৫৩০০ জনের বেশী প্রবাসীবাড়ি ফিরেছেন। তিনি জানান, কোয়ারেন্টিনে থাকা সকলকে নিবিড়পর্যবেক্ষনে রেখেছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও জেলা স্বাস্থ বিভাগ। কোয়ারেন্টাইনে থাকা লোকদের পর্যবেক্ষন করছেন স্বাস্থ বিভাগের কর্মীরা।বাকীদের কোন তথ্য না থাকায় তাদেরকে হোম কোয়রেন্টাইনের আওতায় আনাসম্ভব হচ্ছেনা। ইমিগ্রেশন থেকে যে তথ্য দেয়া হয়েছে সে ঠিাকানা অনুযায়ী তাদেরকে পাওয়া না যাওয়ায় হোমকোয়ারেন্টাইন দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এর বাইরে জেলা প্রশাসন এবং স্থানীয় চেয়াম্যান মেম্বারদেরও দায়িত্ব দেয়া হয়েছে দেখা-শুনা করার জন্য। সিভিল পোশাকে পুলিশও কোয়ারেন্টাইনে থাকা লোকজনকে পর্যবেক্ষন করছেন। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টাইন মানার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

যারা এ নির্দেশনা মানবেনা না তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।তবে কোয়ারেন্টিনে থাকা লোকজনের সামাজিক নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হচ্ছে। জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজ্জামান জানান, প্রবাসী অধ্যুষিত ফেনীতে করোনা ভাইরাস সংক্রামন ঠেকাতে নানা উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এখানকার জনপ্রতিনিধি ও সরকারী কর্মকর্তাদের মাধ্যমে প্রবাস ফেরৎদের হোম কোয়ারেন্টাইন পালনে বাধ্য করা হচ্ছে। এদিকে মাঠে রয়েছে সেনাবাহিনী। তারা বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা এবং সকল জন সাধারণকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অনুরোধ করেছেন।

Share Button