নিজস্ব প্রতিবেদক: ফেনীতে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের লংমার্চ হামলার স্থান পরিদর্শন করেছেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন। শনিবার বিকালে ট্রাংক রোডের দোয়েল চত্বর এলাকায় সাংসদের ছবি বিকৃত করার স্থানটি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন তিনি। ডিআইজি বলেন, সংঘর্ষে পুলিশের দই সদস্য আহত হয়েছে।
এ ঘটনায় কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এর আগে ‘ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ এর নয় দফা দাবীতে ফেনীতে লংমার্চ এর সমাবেশ শেষে যাওয়া পথে শহরের খাজুরিয়ায় নামক স্হানে হামলা চালিয় সরকার দলীয়রা, অভিযোগ ছাত্রফ্রন্ট নেতাদের।
হামলায় তিন সাংবাদিক ছাড়াও অন্তত ২৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। সমাজতন্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা ঘটনার জন্য আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দায়ী করেছেন। আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে ঘটনার সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করেন।
ছাত্রফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা অভিযোগ করেন, লং মার্চ সহ্য করতে না পেরে ট্রাংক রোডে সমাবেশ শেষে তারা হামলা চালিয়ে মারধর ও ৬টি গাড়ী ভাংচুর করে। এতে অন্তত ২শ নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে তার দাবী।
সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক শুসেন চন্দ্র শীল জানান, লং মার্চকারীরা বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর ছবিতে ‘ধর্ষকদের পাহারাদার’ লেখায় সাধারণ মানুষ প্রতিহত করেছে।
Share Button