পরশুরাম প্রতিনিধি : ফেনীতে মধ্যযুগীয় কায়দায় এক গৃহবধুকে নির্যাতনের ঘটনায় স্বামী ও শ্বশুরকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে পরশুরাম থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে এ দু’জনকে আটক করে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, জেলার পরশুরাম উপজেলার বক্সমাহমুদ ইউনিয়নের সাতকুচিয়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ইয়াকুব শ্বশুর বাড়ি থেকে মৌসুমী ফল কম আনায় স্ত্রী ফারজানার উপর সীমাহীন নির্যাতন চালায়।
এসময় ইয়াকুব ফারজানাকে লোহার রড ও ইট দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। মারাত্বক ফোলা ও জখম নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয় গৃহবধু। তার বাম পাশের হাঁটু পর্যন্ত অংশ মারাত্বক জখম হয়েছে।
বর্তমানে ফারজানা পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে। গৃহবধুর অভিযোগ এয়াকুব আলী নেশাগ্রস্থ ও মাতাল। চার লাখ টাকা যৌতুক দাবীসহ তুচ্ছ কারণে এর আগেও বহুবার সে ফারজানাকে মারধর করেছে।
পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার রোকসানা সুরাইয়া জানান, ফারজানার শরীরে একাধিক স্থানে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে। মাথা হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে।
পরশুরাম মডেল থানার ওসি খালেদ হোসেন জানান, গৃহবধুকে নির্যাতনের সত্যতা পাওয়ায় অভিযোগের ভিত্তিতে এয়াকুব ও তার বাবাকে আটক করা হয়েছে।

Share Button